পুলিশের বিরুদ্ধে দৃশ্যত বর্ণের ভিত্তিতে অপরাধী সন্দেহের অভিযোগ তুলে মামলা করেছেন ৩ বিদেশি বংশোদ্ভূত জাপানি বাসিন্দা

জাপানের তিনজন বিদেশি বংশোদ্ভূত বাসিন্দা পুলিশের বিরুদ্ধে দৃশ্যত বর্ণের ভিত্তিতে অপরাধী সন্দেহের অভিযোগ তুলে রাষ্ট্র ও স্থানীয় সরকারের কাছ থেকে ক্ষতিপূরণ চেয়ে একটি মামলা দায়ের করেছেন।

টোকিও এবং আইচি জেলায় বসবাসকারী এই ৩ জন পুরুষ সোমবার তাদের আইনজীবীর উপস্থিতিতে রাজধানীতে সাংবাদিকদের সাথে সাক্ষাৎ করেন।

তাদের অভিযোগে বলা হচ্ছে, কোনো আপাত কারণ ছাড়াই পুলিশ এই বাদীদেরকে বারবার থামিয়েছে।

বাদীরা বলছেন যে পুলিশ তাদের ব্যক্তিগত জিনিসপত্র তল্লাশি করেছে এবং তাদের থামানোর জন্য বিদেশি নাগরিকদের গাড়ি চালাতে দেখা বিরল'সহ নানা অদ্ভুত অজুহাত দিয়েছে।

এই তিন ব্যক্তি কেন্দ্রীয় সরকার, টোকিও মহানগর এবং আইচি জেলা সরকারের কাছ থেকে ৩ মিলিয়ন ইয়েন বা প্রায় ২০ হাজার ডলার ক্ষতিপূরণ চাইছেন। তারা বলছেন, এ ধরনের পুলিশি জিজ্ঞাসাবাদ বৈষম্যমূলক এবং সংবিধানের পরিপন্থী।

বাদী পক্ষের আইনজীবীরা আইচি জেলা পুলিশের প্রস্তুত করা বলে মনে হওয়া কিছু নির্দেশাবলী সম্পর্কে একজন প্রতিবেদককে জানিয়েছেন।

আইনজীবীদের ভাষ্যমতে, এই নির্দেশাবলীতে এমন কথা লেখা রয়েছে যে, "পুলিশকে অবশ্যই এই বিশ্বাসের সাথে পূর্ণাঙ্গ তদন্ত করতে হবে যে জাপানি ভাষায় কথা বলতে না পারা বিদেশি চেহারার ব্যক্তিরা অবশ্যই কোনো না কোনো অবৈধ কর্মে জড়িত রয়েছেন।"

২৬ বছর বয়সী বাদী সেইয়েদো জাইন একজন জাপানি নাগরিক। তার বাবা-মা পাকিস্তান থেকে এসেছেন। তিনি সাংবাদিকদের বলেন, তিনি জিজ্ঞাসাবাদের সময় পুলিশের সাথে সহযোগিতা করেছিলেন, কারণ তিনি অনুভব করেছিলেন সেটিই নিরাপদ। তবে তাকে যখন এভাবে ১০ বারেরও বেশি জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়, তিনি ভাবতে শুরু করেন কেন তাকে থামানো হচ্ছে।