জাপানে বার্ষিক বেতন বিষয়ক আলোচনা শুরু

জাপানে বার্ষিক বেতন বিষয়ক আলোচনা শুরু হয়েছে। গত বছরের বেতন বৃদ্ধির গতি অব্যাহত থাকবে কিনা এবং দেশকে মুদ্রা সংকোচন থেকে পুরোপুরি বের হয়ে আসতে তা সাহায্য করবে কিনা, সেদিকে এখন মনোযোগ আকৃষ্ট হচ্ছে।

বসন্তকালীন বেতন আলোচনার সূচনা উপলক্ষে বুধবার টোকিওতে ব্যবসায়ী ও শ্রমিক নেতারা এক বৈঠকে মিলিত হন। শ্রম মন্ত্রণালয়ের এক জরিপে দেখা গেছে যে বড় কোম্পানিগুলো গত বছর গড়ে ৩.৬ শতাংশ বেতন বৃদ্ধি করেছে, যা তিন দশকের মধ্যে সর্বোচ্চ।

রেঙ্গো নামে পরিচিত জাপানের শ্রমিক ইউনিয়ন কনফেডারেশন কমপক্ষে ৩ শতাংশ মৌলিক বেতন বৃদ্ধি প্রত্যাশা করছে। জ্যেষ্ঠতা ভিত্তিক বৃদ্ধি সহ সামগ্রিকভাবে ৫ শতাংশ বা তার বেশি বৃদ্ধি সংগঠন চায়।

রেঙ্গো কর্মকর্তারা বলছেন, মূল্যস্ফীতি সামাল দেয়ার মত পর্যাপ্ত দ্রুত গতিতে বেতন বৃদ্ধি পাচ্ছে না। তারা বলেন, জাপানকে অবশ্যই এমন একটি অর্থনীতি গড়ে তুলতে হবে, পণ্যের মূল্য এবং বেতন উভয়ই যেখানে স্থিতিশীলভাবে বৃদ্ধি পাবে।

একই সাথে ব্যবস্থাপনার দিক থেকে জাপান ব্যবসায়িক ফেডারেশন বা কেইদানরেনও বেতন বাড়ানোর জন্য সংস্থাগুলিকে তাগিদ দিচ্ছে। কেইদানরেন জানায় যে ছোট আকারের ব্যবসা সহ ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠানগুলিকে কর্মীদের বেতন বৃদ্ধির বোঝা পণ্যের উচ্চ মূল্যের উপর চাপাতে হবে।

ব্যবসায়িক স্বার্থ রক্ষা প্রতিষ্ঠান জানিয়েছে যে সমস্ত কর্মচারীদের জন্য উচ্চ বেতনের সুযোগ করে দেওয়ারও প্রয়োজন আছে, এমনকি তারা পূর্ণকালীন কর্মী না হলেও।