জাপানকে পরমাণু অস্ত্র নিষিদ্ধকরণ সংক্রান্ত বৈঠকে অংশগ্রহণের আহ্বান আইক্যান প্রধানের

পরমাণু অস্ত্র নিষিদ্ধকরণের জন্য জাতিসংঘের একটি চুক্তি সংশ্লিষ্ট রাষ্ট্রীয় পক্ষের বৈঠকে পর্যবেক্ষক হিসাবে অংশ নিতে জাপানের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন পরমাণু অস্ত্র বিলুপ্তির জন্য প্রচারাভিযান, বা আইক্যান-এর প্রধান।

আইক্যান-এর নির্বাহী পরিচালক মেলিসা পার্ক সোমবার টোকিওতে জাপান জাতীয় প্রেসক্লাবে একটি সংবাদ সম্মেলন করেন। তিনি এর আগে জাপানে অবস্থানকালীন হিরোশিমা এবং নাগাসাকি পরিদর্শন করেন, যেসময়টি পরমাণু অস্ত্র নিষিদ্ধকরণ চুক্তি কার্যকর হওয়ার তৃতীয় বার্ষিকীর সাথে মিলে যায়।

উল্লেখ্য, চুক্তিটি গ্রহণে অবদানের জন্য আন্তর্জাতিক গ্রুপটি ২০১৭ সালের নোবেল শান্তি পুরস্কারে ভূষিত হয়।

পার্কের ভাষ্যানুযায়ী, যুক্তরাষ্ট্রের তথাকথিত পারমাণবিক ছাতার উপর জাপানের নির্ভরতার নীতি শুধুমাত্র সুরক্ষার বিভ্রমই প্রকাশ করে।

তিনি এও উল্লেখ করেন যে পারমাণবিক প্রতিরোধ তত্ত্ব প্রচার করে, জাপান এবং অন্যান্য দেশগুলো পরমাণু অস্ত্র বিস্তারের ঝুঁকি বাড়াচ্ছে এবং নিরস্ত্রীকরণ প্রচেষ্টাকে দুর্বল করছে।

তিনি এও বলেন যে জাপান এই বিষয়ে নৈতিক নেতৃত্বের নীতি দেখাতে পারে কারণ সংঘাতে পারমাণবিক অস্ত্র দ্বারা আক্রান্ত একমাত্র দেশ হওয়ার অনন্য অবস্থানে এটি রয়েছে।

তিনি পর্যবেক্ষক হিসেবে রাষ্ট্রীয় পক্ষসমূহের বৈঠকে জাপানকে অংশগ্রহণের আহ্বান জানিয়ে বলেন, এটি করার জন্য অনেক দেরি এখনও হয়নি।

পার্ক বিশ্ব নেতৃবৃন্দকে পারমাণবিক বোমা থেকে বেঁচে যাওয়া ব্যক্তিদের কাহিনী শোনার পাশাপাশি মানবতার উপর পরমাণু অস্ত্রের ক্ষতিকর প্রভাব অনুধাবনেরও আহ্বান জানান।